ঢাকা ০৮:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ বোলারদের দারুন নৈপুন্যে পরাজিত হয়েছে নিউজিল্যান্ড

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১২:২৮:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ৯৬ খবরটি দেখা হয়েছে

বাংলাদেশ বোলারদের দারুন নৈপুন্যে তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটে পরাজিত হয়েছে স্বাগতিক  নিউজিল্যান্ড। শরিফুল ইসলাম-মাহেদি হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানদের বিপক্ষে জ¦লে উঠতে পারেনি স্বাগতিক ব্যাটাররা।  ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ বোলারদের প্রশংসায় ভাসিয়েছেন  নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক মিচেল স্যান্টনার। 
তিনি বলেন  বাংলাদেশের বোলাররা দারুন বল করেছে। তাদের খেলা কঠিন ছিলো। এজন্য বড় স্কোর করা সম্ভব হয়নি।
নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে বাংলাদেশী  বোলারদের তোপের মুখে পড়ে নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় ওভারের মধ্যে মাত্র ১ রানে ৩ উইকেট হারায় কিউইরা। ইনিংসের প্রথম ওভারে মাহেদি ১টি ও দ্বিতীয় ওভারে ২ উইকেট তুলে নেন শরিফুল। 
শুরুর ধাক্কা সামলে উঠার চেষ্টা করলেও, নিউজিল্যান্ডকে বড় জুটি গড়তে দেয়নি বাংলাদেশের বোলাররা। ষষ্ঠ উইকেটে জেমস নিশাম ও স্যান্টনারের ৪১ রান ছিলো তাদের ইনিংসের সর্বোচ্চ জুটি। তারপরও ৯ উইকেটে ১৩৪ রান পর্যন্ত যেতে পারে কিউইরা। দেশের মাটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে এটিই সর্বনি¤œ রান নিউজিল্যান্ডের। 
৪ ওভারে ২৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সফল বোলার শরিফুল। ৪ ওভার করে বল করে মাহেদি ১৪ রানে ও মুস্তাফিজ ১৫ রানে ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট শিকার করেন অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা তানজিম হাসান ও স্পিনার রিশাদ হোসেন।
বোলারদের দুর্দান্ত বোলিং নৈপুন্যের পর ব্যাটারদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৮ বল বাকী রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪২ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন লিটন দাস। 
ঘরের মাঠে প্রথমবারের মত বাংলাদেশের কাছে টি-টোয়েন্টিতে হারের পর ম্যাচ শেষে শরিফুল-মাহেদিদের প্রশংসা করেন স্যান্টনার। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশকে কৃতিত্ব দিতে হবে। দুর্দান্ত বোলিং করেছে বাংলাদেশের বোলাররা। হার্ড লেংথে বোলিং করার কারনে ক্রস ব্যাটে খেলা সম্ভব হয়নি।’
তিনি আরও বলেন, ‘দলের সংগ্রহ ১৫০-১৬০ হলে, আমাদের জন্য ভালো হতো। তারপরও আমরা ম্যাচটি জুময়ে তুলতে  বল হাতে লড়াই করার চেষ্টা করেছি।’
পাওয়ার প্লেতে ৩৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। সেখানেই ম্যাচ থেকে কিউইরা ছিটকে গেছে বলে মনে করেন স্যান্টনার। তিনি বলেন, ‘পাওয়ার প্লেতে আমরা ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছি। সেখানে ৪ উইকেট না হারালে বড় সংগ্রহ করা সম্ভব হতো।’
ঘরের মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিনবার দ্বিপাক্ষীক সিরিজ খেলেছে নিউজিল্যান্ড। সবগুলোতেই জিতেছে তারা। সিরিজ হার এড়াতে শেষ দুই ম্যাচে ভালো পারফরমেন্স করার ব্যাপারে আশাবাদি স্যান্টনার। তিনি বলেন, ‘মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে ভিন্ন উইকেটে আমরা ভালো কিছু করতে পারবো বলে আশা করি। ভিন্ন কন্ডিশন, সবকিছু নতুনভাবে শুরু করবো আমরা। শেষ ম্যাচে দুই ম্যাচে জয়ের জন্যই মাঠে নামবে দল।’

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

বাংলাদেশ বোলারদের দারুন নৈপুন্যে পরাজিত হয়েছে নিউজিল্যান্ড

আপডেট সময় : ১২:২৮:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩

বাংলাদেশ বোলারদের দারুন নৈপুন্যে তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটে পরাজিত হয়েছে স্বাগতিক  নিউজিল্যান্ড। শরিফুল ইসলাম-মাহেদি হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানদের বিপক্ষে জ¦লে উঠতে পারেনি স্বাগতিক ব্যাটাররা।  ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ বোলারদের প্রশংসায় ভাসিয়েছেন  নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক মিচেল স্যান্টনার। 
তিনি বলেন  বাংলাদেশের বোলাররা দারুন বল করেছে। তাদের খেলা কঠিন ছিলো। এজন্য বড় স্কোর করা সম্ভব হয়নি।
নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে বাংলাদেশী  বোলারদের তোপের মুখে পড়ে নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় ওভারের মধ্যে মাত্র ১ রানে ৩ উইকেট হারায় কিউইরা। ইনিংসের প্রথম ওভারে মাহেদি ১টি ও দ্বিতীয় ওভারে ২ উইকেট তুলে নেন শরিফুল। 
শুরুর ধাক্কা সামলে উঠার চেষ্টা করলেও, নিউজিল্যান্ডকে বড় জুটি গড়তে দেয়নি বাংলাদেশের বোলাররা। ষষ্ঠ উইকেটে জেমস নিশাম ও স্যান্টনারের ৪১ রান ছিলো তাদের ইনিংসের সর্বোচ্চ জুটি। তারপরও ৯ উইকেটে ১৩৪ রান পর্যন্ত যেতে পারে কিউইরা। দেশের মাটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে এটিই সর্বনি¤œ রান নিউজিল্যান্ডের। 
৪ ওভারে ২৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সফল বোলার শরিফুল। ৪ ওভার করে বল করে মাহেদি ১৪ রানে ও মুস্তাফিজ ১৫ রানে ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট শিকার করেন অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা তানজিম হাসান ও স্পিনার রিশাদ হোসেন।
বোলারদের দুর্দান্ত বোলিং নৈপুন্যের পর ব্যাটারদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৮ বল বাকী রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪২ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন লিটন দাস। 
ঘরের মাঠে প্রথমবারের মত বাংলাদেশের কাছে টি-টোয়েন্টিতে হারের পর ম্যাচ শেষে শরিফুল-মাহেদিদের প্রশংসা করেন স্যান্টনার। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশকে কৃতিত্ব দিতে হবে। দুর্দান্ত বোলিং করেছে বাংলাদেশের বোলাররা। হার্ড লেংথে বোলিং করার কারনে ক্রস ব্যাটে খেলা সম্ভব হয়নি।’
তিনি আরও বলেন, ‘দলের সংগ্রহ ১৫০-১৬০ হলে, আমাদের জন্য ভালো হতো। তারপরও আমরা ম্যাচটি জুময়ে তুলতে  বল হাতে লড়াই করার চেষ্টা করেছি।’
পাওয়ার প্লেতে ৩৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। সেখানেই ম্যাচ থেকে কিউইরা ছিটকে গেছে বলে মনে করেন স্যান্টনার। তিনি বলেন, ‘পাওয়ার প্লেতে আমরা ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছি। সেখানে ৪ উইকেট না হারালে বড় সংগ্রহ করা সম্ভব হতো।’
ঘরের মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিনবার দ্বিপাক্ষীক সিরিজ খেলেছে নিউজিল্যান্ড। সবগুলোতেই জিতেছে তারা। সিরিজ হার এড়াতে শেষ দুই ম্যাচে ভালো পারফরমেন্স করার ব্যাপারে আশাবাদি স্যান্টনার। তিনি বলেন, ‘মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে ভিন্ন উইকেটে আমরা ভালো কিছু করতে পারবো বলে আশা করি। ভিন্ন কন্ডিশন, সবকিছু নতুনভাবে শুরু করবো আমরা। শেষ ম্যাচে দুই ম্যাচে জয়ের জন্যই মাঠে নামবে দল।’