ঢাকা ০৫:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশের প্রতিক্রিয়ায় ‘সন্তুষ্ট’ যুক্তরাষ্ট্রনতুন ভিসা নীতি:

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করতে নতুন মার্কিন ভিসা নীতির বিষয়ে বাংলাদেশের প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র ‘সন্তুষ্ট’ বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তর।

ওয়াশিংটনের স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার নিয়মিত ব্রিফিংয়ে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথু মিলার এক প্রশ্নের জবাবে তাঁর দেশের এই অবস্থানের কথা জানান।

ম্যাথু মিলার বলেন, ‘আমাদের সিদ্ধান্তকে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানোয় আমরা সন্তুষ্ট হয়েছি। আমরা বিশ্বাস করি, শান্তি, সমৃদ্ধি ও নিরাপত্তাকে এগিয়ে নেওয়ার সবচেয়ে স্থায়ী উপায় গণতন্ত্র।

এ জন্যই আমরা এই ঘোষণা দিয়েছি। সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথে আমরা বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কাজ করতে চাই।’

প্রসঙ্গত, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনালিটি অ্যাক্টের ২১২ (এ) (৩) (সি) (‘৩ সি’) ধারা অনুযায়ী, বাংলাদেশের জন্য নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক নির্বাচনপ্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করার জন্য দায়ী বা জড়িত ব্যক্তি ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে ভিসায় বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্রিফিংয়ে ম্যাথু মিলারের কাছে প্রশ্ন করা হয়েছিল, বাংলাদেশের আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে বিরোধী দলকে যুক্তরাষ্ট্র অনুরোধ জানাবে কি না।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র বলেন, ‘বাংলাদেশের কোনো রাজনৈতিক দলের কী করা উচিত বা করা উচিত নয়, সে বিষয়ে আমি কথা বলতে যাচ্ছি না। আমি বলব যে এই প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পক্ষে। এ জন্য আমরা নতুন এই নীতি ঘোষণা করেছি।’

ট্যাগ :

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

বাংলাদেশের প্রতিক্রিয়ায় ‘সন্তুষ্ট’ যুক্তরাষ্ট্রনতুন ভিসা নীতি:

আপডেট সময় : ১২:১৩:০২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করতে নতুন মার্কিন ভিসা নীতির বিষয়ে বাংলাদেশের প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র ‘সন্তুষ্ট’ বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তর।

ওয়াশিংটনের স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার নিয়মিত ব্রিফিংয়ে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথু মিলার এক প্রশ্নের জবাবে তাঁর দেশের এই অবস্থানের কথা জানান।

ম্যাথু মিলার বলেন, ‘আমাদের সিদ্ধান্তকে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানোয় আমরা সন্তুষ্ট হয়েছি। আমরা বিশ্বাস করি, শান্তি, সমৃদ্ধি ও নিরাপত্তাকে এগিয়ে নেওয়ার সবচেয়ে স্থায়ী উপায় গণতন্ত্র।

এ জন্যই আমরা এই ঘোষণা দিয়েছি। সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথে আমরা বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কাজ করতে চাই।’

প্রসঙ্গত, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনালিটি অ্যাক্টের ২১২ (এ) (৩) (সি) (‘৩ সি’) ধারা অনুযায়ী, বাংলাদেশের জন্য নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক নির্বাচনপ্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করার জন্য দায়ী বা জড়িত ব্যক্তি ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে ভিসায় বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্রিফিংয়ে ম্যাথু মিলারের কাছে প্রশ্ন করা হয়েছিল, বাংলাদেশের আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে বিরোধী দলকে যুক্তরাষ্ট্র অনুরোধ জানাবে কি না।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র বলেন, ‘বাংলাদেশের কোনো রাজনৈতিক দলের কী করা উচিত বা করা উচিত নয়, সে বিষয়ে আমি কথা বলতে যাচ্ছি না। আমি বলব যে এই প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পক্ষে। এ জন্য আমরা নতুন এই নীতি ঘোষণা করেছি।’