ঢাকা ০২:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরিশালে হাতপাখার প্রার্থী মুফতী ফয়জুল করীমের ইশতেহার ঘোষণা

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ১২:৩৩:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৯ জুন ২০২৩
  • ২৯ খবরটি দেখা হয়েছে

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত মেয়র প্রার্থী মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম ১৭ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন।

নগরীর বান্দ রোডে সাউথ কিং চাইনিজ রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি তার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন।

মেয়র নির্বাচিত হলে তিনি বরিশালকে একটি উন্নত, দুর্নীতি-সন্ত্রাস ও দূষণমুক্ত শান্তির নগরী হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিতসহ দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন, স্বচ্ছতা আনয়ণ, জবাবদিহি নিশ্চিতকরণ, নগরবিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন, নগর সরকার গঠনে কার্যকর উদ্যোগ, পানি সমস্যার সমাধান, খাদ্যে ভেজাল নিয়ন্ত্রণ, ওয়ার্ডভিত্তিক পরিকল্পনা ও মাতৃসদন প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হবে বলে ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া নগরীতে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্যের ভেজাল নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ,  সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা, ভিক্ষুকদের অসহায়ত্ব দূরীকরণ, নিরাপদ বাসস্থান ও কর্মক্ষেত্র নিশ্চিত করা, হোল্ডিং ট্যাক্স ও সকল ধরনের লাইসেন্স ফি সহনশীল পর্যায়ে আনা, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনসহ সব ধরনের নাগরিক সেবা সহজ করা, স্বল্প খরচে বিল্ডিং প্লান পাশ করা, উন্নত রাস্তা-ঘাট নির্মাণ করা, নদী ভাঙন রোধে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা, শহরের সবুজায়ন ও শোভা বর্ধন করতে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করা, আধুনিক মানের ড্রেন নির্মাণ ও খাল খনন করা, জলাবদ্ধতা নিরসন করা, পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথকভাবে আধুনিক মানের পাবলিক টয়লেট নিমাণ করা, ভোলা থেকে বরিশালে গ্যাস সংযোগ করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা, প্রতিটি রাস্তায় সড়কবাতির ব্যবস্থা করা, আধুনিক ট্রাফিক সিগনাল বসানো, মোড়গুলোতে আইল্যান্ড ও ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করবেন বলেও জানান তিনি।

পাশাপাশি শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল ও সদর হাসপাতালের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা, ডোর টু ডোর বর্জ্য সংগ্রহ, প্রতিটি এলাকায় ঢাকনাসহ ডাস্টবিনের ব্যবস্থা করা, প্রতিদিন সূর্যোদয়ের পূর্বেই সকল ধরনের বর্জ্য নিরাপদ দূরত্বে নির্দিষ্ট স্থানে অপসারণ করা, নগরীর ধুলাবালি দূরীকরণ ও আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরিবেশ দূষণ রোধ করার কথাও উল্লেখ করেন মুফতী ফয়জুল করীম। 

মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, আমি মেয়র নয় নগরবাসীর খাদেম হতে চাই। এ শহরের প্রতিটি মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করার পাশাপাশি একটি আধুনিক বরিশাল নগরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য আমি অঙ্গিকারবদ্ধ।

এসময় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিভিন্ন পর্যাযের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ :

খুলনার দাকোপে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদযাপন হয়েছে

বরিশালে হাতপাখার প্রার্থী মুফতী ফয়জুল করীমের ইশতেহার ঘোষণা

আপডেট সময় : ১২:৩৩:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৯ জুন ২০২৩

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত মেয়র প্রার্থী মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম ১৭ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন।

নগরীর বান্দ রোডে সাউথ কিং চাইনিজ রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি তার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন।

মেয়র নির্বাচিত হলে তিনি বরিশালকে একটি উন্নত, দুর্নীতি-সন্ত্রাস ও দূষণমুক্ত শান্তির নগরী হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিতসহ দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন, স্বচ্ছতা আনয়ণ, জবাবদিহি নিশ্চিতকরণ, নগরবিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন, নগর সরকার গঠনে কার্যকর উদ্যোগ, পানি সমস্যার সমাধান, খাদ্যে ভেজাল নিয়ন্ত্রণ, ওয়ার্ডভিত্তিক পরিকল্পনা ও মাতৃসদন প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হবে বলে ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া নগরীতে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্যের ভেজাল নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ,  সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা, ভিক্ষুকদের অসহায়ত্ব দূরীকরণ, নিরাপদ বাসস্থান ও কর্মক্ষেত্র নিশ্চিত করা, হোল্ডিং ট্যাক্স ও সকল ধরনের লাইসেন্স ফি সহনশীল পর্যায়ে আনা, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনসহ সব ধরনের নাগরিক সেবা সহজ করা, স্বল্প খরচে বিল্ডিং প্লান পাশ করা, উন্নত রাস্তা-ঘাট নির্মাণ করা, নদী ভাঙন রোধে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা, শহরের সবুজায়ন ও শোভা বর্ধন করতে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করা, আধুনিক মানের ড্রেন নির্মাণ ও খাল খনন করা, জলাবদ্ধতা নিরসন করা, পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথকভাবে আধুনিক মানের পাবলিক টয়লেট নিমাণ করা, ভোলা থেকে বরিশালে গ্যাস সংযোগ করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা, প্রতিটি রাস্তায় সড়কবাতির ব্যবস্থা করা, আধুনিক ট্রাফিক সিগনাল বসানো, মোড়গুলোতে আইল্যান্ড ও ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করবেন বলেও জানান তিনি।

পাশাপাশি শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল ও সদর হাসপাতালের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা, ডোর টু ডোর বর্জ্য সংগ্রহ, প্রতিটি এলাকায় ঢাকনাসহ ডাস্টবিনের ব্যবস্থা করা, প্রতিদিন সূর্যোদয়ের পূর্বেই সকল ধরনের বর্জ্য নিরাপদ দূরত্বে নির্দিষ্ট স্থানে অপসারণ করা, নগরীর ধুলাবালি দূরীকরণ ও আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরিবেশ দূষণ রোধ করার কথাও উল্লেখ করেন মুফতী ফয়জুল করীম। 

মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, আমি মেয়র নয় নগরবাসীর খাদেম হতে চাই। এ শহরের প্রতিটি মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করার পাশাপাশি একটি আধুনিক বরিশাল নগরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য আমি অঙ্গিকারবদ্ধ।

এসময় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিভিন্ন পর্যাযের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।