ঢাকা ০৯:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরগুনায় পিকনিকের বাস উল্টে নিহত ১, আহত ১৭

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৯:৪৪:২৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট ২০২৩
  • ৯২ খবরটি দেখা হয়েছে

বরগুনার আমতলীতে পিকনিকের বাস উল্টে পড়ে মো. ইসলাম (৫২) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

এ সময় শিশুসহ ১৭ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (১৮ আগস্ট) ভোর ৫টার দিকে পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের ঘটখালী নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতদের আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল ও বরিশালের শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহত মো. ইসলাম নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার সল্পের চর গ্রামের শামসুদ্দিন বেপারীর ছেলে। আহতরা সবাই সল্পের চর গ্রামের বাসিন্দা।

আমতলী থানা পুলিশ জানায়, নারায়ণগঞ্জ থেকে কুয়াকাটায় পিকনিক করতে গিয়েছিলেন তারা। তাদের বহনকারী বাসটি ঘটখালীতে পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়।

এতে ওই বাসের ৪৫ যাত্রীর মধ্যে ১৮ জন গুরুতর আহত হন। আহতদের পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বরিশালে নেওয়ার পথে মো. ইসলামের মৃত্যু হয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ইমরান জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ১৮ জন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসেছিলেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, ওই দুর্ঘটনার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। বাসের চালক ও তার সহকারী পালিয়েছে।

ট্যাগ :

খুলনার দাকোপে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদযাপন হয়েছে

বরগুনায় পিকনিকের বাস উল্টে নিহত ১, আহত ১৭

আপডেট সময় : ০৯:৪৪:২৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট ২০২৩

বরগুনার আমতলীতে পিকনিকের বাস উল্টে পড়ে মো. ইসলাম (৫২) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

এ সময় শিশুসহ ১৭ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (১৮ আগস্ট) ভোর ৫টার দিকে পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের ঘটখালী নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতদের আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল ও বরিশালের শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহত মো. ইসলাম নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার সল্পের চর গ্রামের শামসুদ্দিন বেপারীর ছেলে। আহতরা সবাই সল্পের চর গ্রামের বাসিন্দা।

আমতলী থানা পুলিশ জানায়, নারায়ণগঞ্জ থেকে কুয়াকাটায় পিকনিক করতে গিয়েছিলেন তারা। তাদের বহনকারী বাসটি ঘটখালীতে পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়।

এতে ওই বাসের ৪৫ যাত্রীর মধ্যে ১৮ জন গুরুতর আহত হন। আহতদের পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বরিশালে নেওয়ার পথে মো. ইসলামের মৃত্যু হয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ইমরান জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ১৮ জন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসেছিলেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, ওই দুর্ঘটনার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। বাসের চালক ও তার সহকারী পালিয়েছে।