ঢাকা ১০:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরচুন বরিশালে যোগ দিলেন মুশফিক

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৮:৫৯:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ৯১ খবরটি দেখা হয়েছে

তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের সাথে ফরচুন বরিশালে যোগ দিয়েছেন অভিজ্ঞ ব্যাটার মুশফিকুর রহিম। আজ স্থানীয় একটি হোটেল অনুষ্ঠিত আসন্ন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফটে প্রথম ডাকেই মুশফিককে দলে ভেড়ায় বরিশাল।
স্থানীয়দের তালিকায় ছয়টির মধ্যে সর্বোচ্চ ৮০ লাখ মূল্যের ‘এ’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে ছিলেন মুশফিক।
গত আসরের ন্যায় এবারও বরিশালে আছেন মাহমুদুল্লাহ সাথে যোগ দিয়েছেন খুলনা টাইগার্স থেকে আসা তামিম।
প্রথম ডাক দেয়ার সুযোগ পেয়ে রনি তালুকদারকে দলে ভেড়ায় রংপুর রাইডার্স। এর আগে সরাসরি চুক্তিতে সাকিব আল হাসানকে দলে নেয় উত্তরবঙ্গের দলটি। এছাড়া গত মৌসুমে দলের হয়ে খেলা বেশিরভাগ খেলোয়াড়কেই ধরে রাখে রংপুর। এবারের আসরে বিদেশীদের মধ্যে রংপুরের হয়ে খেলবেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমও।
দ্বিতীয় দল হিসেবে ডাকার সুযোগ পেয়ে মোহাম্মদ মিঠুনকে নেয় বর্তমান রানার্স আপ সিলেট স্ট্রাইকার্স।
প্রথম দুই ডাকে দল পাননি মুশফিক। তৃতীয় ডাকে মুশফিককে দলে নেয় বরিশাল।
৫০ লাখ টাকা মূল্যের ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ছিলেন ইমরুল কায়েস, এবাদত হোসেন, রনি তালুকদার এবং আফিফ হোসেনের মতো খেলোয়াড়রা।
সর্বশেষ দু’বারসহ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের তিনবার শিরোপা জয়ের নেতৃত্বে ছিলেন ইমরুল। বিপিএলে সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার পরই আছেন তিনি। সিলেট স্ট্রাইকার্স মাশরাফিকে ধরে রাখলেও ইমরুলের বিষয়টি ছিলো উল্টো। ইমরুলকে ধরে রাখেনি কুমিল্লা। কিন্তু ড্রাফট থেকে ঠিকই ইমরুলকে শেষ মুর্হূতে দলে নেয় কুমিল্লা।
এবার মোহাম্মদ রিজওয়ান, সুনীল নারাইন, তাওহিদ হৃদয়, মঈন আলি, আন্দ্রে রাসেল, ইফতিখার আহমেদ, জনসন চার্লস, নুর আহমেদ, নাসিম শাহ, রশিদ খানের মতো তারকা খেলোয়াড়দের নিয়ে দল সাজিয়েছে কুমিল্লা।
হাঁটুর ইনজুরির কারনে পুনর্বাসনে থাকবে বলে দল পাননি এবাদত। ‘বি’ ক্যাটাগরি থেকে আফিফকে দলে নিয়েছে খুলনা টাইগার্স।
মোমিনুল হক, মোহাম্মদ আশরাফুল ও সাব্বির রহমানদের মত খেলোয়াড়দের দলে নেয়নি কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : লিটন দাস, মুস্তাফিজুর রহমান, তানভীর ইসলাম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, সুনীল নারাইন, তাওহিদ হৃদয়, মঈন আলী, আন্দ্রে রাসেল, ইফতিখার আহমেদ, জামান খান, খুশদিল শাহ, জনসন চার্লস, নুর আহমেদ, নাসিম শাহ, রশিদ খান।
ড্রাফট থেকে : মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, জাকের আলি অনিক, মাহিদুল ইসলাম অংকন, রিশাদ হোসেন, রাকিম কর্নওয়াল, ম্যাথিউ ওয়াল্টার ফোর্ড, ইমরুল কায়েস, মুসফিক হাসান, এনামুল হক।
দুরন্ত ঢাকা :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : তাসকিন আহমেদ, আরাফাত সানি, শরিফুল ইসলাম, মোসাদ্দেক হোসেন, চাতুরাঙ্গা ডি সিলভা, সিয়াম আইয়ুব, ওসমান কাদির।
ড্রাফট থেকে : সাইফ হাসান, ইরফান শুক্কুর, আলাউদ্দিন বাবু, মেহরব হোসেন, লাহিরু সামারাকুন, সামিরা সামারাবিক্রমা, নাইম শেখ, সাব্বির হোসেন, জসিমউদ্দিন।
চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : শুভাগত হোম, জিয়াউর রহমান, নিহাদুজ্জামান, শহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ হারিস, নাজিবুল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ হাসনাইন, স্টিভেন এসকান্দি।
ড্রাফট থেকে : তানজিদ হাসান তামিম, আল আমিন হোসেন, সৈকত আলী, ইমরানুজ্জামান, কার্টিস ক্যাম্পার, বিলাল খান, শাহাদাত হোসেন দিপু, সালাহউদ্দিন শাকিল।
খুলনা টাইগার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : নাসুম আহমেদ, নাহিদুল ইসলাম, মাহমুদুল হাসান, এনামুল হক, এভিন লুইস, ফাহিম আশরাফ, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, শাই হোপ, ওয়াসিম জুনিয়র
ড্রাফট থেকে : আফিফ হোসেন, রুবেল হোসেন, পারভেজ হোসেন ইমন, হাবিবুর রহমান সোহান, কাসুন রাজিথা, দাসুন শানাকা, মুকিদুল ইসলাম মুগদ্ধো, আকবর আলী, সুমন খান।
রংপুর রাইডার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : নুরু হাসান সোহান, মাহেদি হাসান, হাসান মাহমুদ, আজমতুল্লাহ ওমরজাই, নিকোলাস পুরান, সাকিব আল হাসান, বাবর আজম, এহসানুল্লাহ, মাথিশা পাথিরানা, ব্রান্ডন কিং, হাসারাঙ্গা ডি সিলভা।
ড্রাফট থেকে : রনি তালুকদার, শামীম পাটোয়ারি, রিপন মন্ডল, হাসান মুরাদ, মিচেল রিপন, ইয়াসির মোহাম্মদ, আবু হায়দার রনি, ফজলে রাব্বি, আশিকুজ্জামান।
ফরচুন বরিশাল :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, ইব্রাহিম জাদরান, তামিম ইকবাল, শোয়েব মালিক, পল স্টার্লিং, ফখর জামান, মোহাম্মদ আমির, আব্বাস আফ্রিদি, দুনিথ ওয়েলালাগে।
ড্রাফট থেকে : মুশফিকুর রহিম, রকিবুল হাসান, সাইফুদ্দিন, সৌম্য সরকার, ইয়ানিক কারিয়া, কামরুল ইসলাম রাব্বি, প্রীতম কুমার, তাইজুল ইসলাম, প্রান্তিক নওরোজ নাবিল, দিনেশ চান্দিমাল।
সিলেট স্ট্রাইকার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : মাশরাফি বিন মর্তুজা, জাকির হাসান, তানজিম হাসান সাকিব, নাজমুল হোসেন শান্ত, রায়ান বার্ল, বেন কাটিং, হ্যারি টেক্টর।
ড্রাফট থেকে : মোহাম্মদ মিঠুন, রেজাউর রহমান রাজা, আরিফুল হক, ইয়াসির আলী রাব্বি, রিচার্ড এনগারাভা, দুশোন হেমন্থা, নাজমুল ইসলাম অপু, শফিকুল ইসলাম, নাঈম হাসান, জাওয়াদ রোয়েন, সালমান হোসেন ইমন।

খুলনার দাকোপে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদযাপন হয়েছে

ফরচুন বরিশালে যোগ দিলেন মুশফিক

আপডেট সময় : ০৮:৫৯:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের সাথে ফরচুন বরিশালে যোগ দিয়েছেন অভিজ্ঞ ব্যাটার মুশফিকুর রহিম। আজ স্থানীয় একটি হোটেল অনুষ্ঠিত আসন্ন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফটে প্রথম ডাকেই মুশফিককে দলে ভেড়ায় বরিশাল।
স্থানীয়দের তালিকায় ছয়টির মধ্যে সর্বোচ্চ ৮০ লাখ মূল্যের ‘এ’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে ছিলেন মুশফিক।
গত আসরের ন্যায় এবারও বরিশালে আছেন মাহমুদুল্লাহ সাথে যোগ দিয়েছেন খুলনা টাইগার্স থেকে আসা তামিম।
প্রথম ডাক দেয়ার সুযোগ পেয়ে রনি তালুকদারকে দলে ভেড়ায় রংপুর রাইডার্স। এর আগে সরাসরি চুক্তিতে সাকিব আল হাসানকে দলে নেয় উত্তরবঙ্গের দলটি। এছাড়া গত মৌসুমে দলের হয়ে খেলা বেশিরভাগ খেলোয়াড়কেই ধরে রাখে রংপুর। এবারের আসরে বিদেশীদের মধ্যে রংপুরের হয়ে খেলবেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমও।
দ্বিতীয় দল হিসেবে ডাকার সুযোগ পেয়ে মোহাম্মদ মিঠুনকে নেয় বর্তমান রানার্স আপ সিলেট স্ট্রাইকার্স।
প্রথম দুই ডাকে দল পাননি মুশফিক। তৃতীয় ডাকে মুশফিককে দলে নেয় বরিশাল।
৫০ লাখ টাকা মূল্যের ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ছিলেন ইমরুল কায়েস, এবাদত হোসেন, রনি তালুকদার এবং আফিফ হোসেনের মতো খেলোয়াড়রা।
সর্বশেষ দু’বারসহ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের তিনবার শিরোপা জয়ের নেতৃত্বে ছিলেন ইমরুল। বিপিএলে সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার পরই আছেন তিনি। সিলেট স্ট্রাইকার্স মাশরাফিকে ধরে রাখলেও ইমরুলের বিষয়টি ছিলো উল্টো। ইমরুলকে ধরে রাখেনি কুমিল্লা। কিন্তু ড্রাফট থেকে ঠিকই ইমরুলকে শেষ মুর্হূতে দলে নেয় কুমিল্লা।
এবার মোহাম্মদ রিজওয়ান, সুনীল নারাইন, তাওহিদ হৃদয়, মঈন আলি, আন্দ্রে রাসেল, ইফতিখার আহমেদ, জনসন চার্লস, নুর আহমেদ, নাসিম শাহ, রশিদ খানের মতো তারকা খেলোয়াড়দের নিয়ে দল সাজিয়েছে কুমিল্লা।
হাঁটুর ইনজুরির কারনে পুনর্বাসনে থাকবে বলে দল পাননি এবাদত। ‘বি’ ক্যাটাগরি থেকে আফিফকে দলে নিয়েছে খুলনা টাইগার্স।
মোমিনুল হক, মোহাম্মদ আশরাফুল ও সাব্বির রহমানদের মত খেলোয়াড়দের দলে নেয়নি কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : লিটন দাস, মুস্তাফিজুর রহমান, তানভীর ইসলাম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, সুনীল নারাইন, তাওহিদ হৃদয়, মঈন আলী, আন্দ্রে রাসেল, ইফতিখার আহমেদ, জামান খান, খুশদিল শাহ, জনসন চার্লস, নুর আহমেদ, নাসিম শাহ, রশিদ খান।
ড্রাফট থেকে : মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, জাকের আলি অনিক, মাহিদুল ইসলাম অংকন, রিশাদ হোসেন, রাকিম কর্নওয়াল, ম্যাথিউ ওয়াল্টার ফোর্ড, ইমরুল কায়েস, মুসফিক হাসান, এনামুল হক।
দুরন্ত ঢাকা :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : তাসকিন আহমেদ, আরাফাত সানি, শরিফুল ইসলাম, মোসাদ্দেক হোসেন, চাতুরাঙ্গা ডি সিলভা, সিয়াম আইয়ুব, ওসমান কাদির।
ড্রাফট থেকে : সাইফ হাসান, ইরফান শুক্কুর, আলাউদ্দিন বাবু, মেহরব হোসেন, লাহিরু সামারাকুন, সামিরা সামারাবিক্রমা, নাইম শেখ, সাব্বির হোসেন, জসিমউদ্দিন।
চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : শুভাগত হোম, জিয়াউর রহমান, নিহাদুজ্জামান, শহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ হারিস, নাজিবুল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ হাসনাইন, স্টিভেন এসকান্দি।
ড্রাফট থেকে : তানজিদ হাসান তামিম, আল আমিন হোসেন, সৈকত আলী, ইমরানুজ্জামান, কার্টিস ক্যাম্পার, বিলাল খান, শাহাদাত হোসেন দিপু, সালাহউদ্দিন শাকিল।
খুলনা টাইগার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : নাসুম আহমেদ, নাহিদুল ইসলাম, মাহমুদুল হাসান, এনামুল হক, এভিন লুইস, ফাহিম আশরাফ, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, শাই হোপ, ওয়াসিম জুনিয়র
ড্রাফট থেকে : আফিফ হোসেন, রুবেল হোসেন, পারভেজ হোসেন ইমন, হাবিবুর রহমান সোহান, কাসুন রাজিথা, দাসুন শানাকা, মুকিদুল ইসলাম মুগদ্ধো, আকবর আলী, সুমন খান।
রংপুর রাইডার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : নুরু হাসান সোহান, মাহেদি হাসান, হাসান মাহমুদ, আজমতুল্লাহ ওমরজাই, নিকোলাস পুরান, সাকিব আল হাসান, বাবর আজম, এহসানুল্লাহ, মাথিশা পাথিরানা, ব্রান্ডন কিং, হাসারাঙ্গা ডি সিলভা।
ড্রাফট থেকে : রনি তালুকদার, শামীম পাটোয়ারি, রিপন মন্ডল, হাসান মুরাদ, মিচেল রিপন, ইয়াসির মোহাম্মদ, আবু হায়দার রনি, ফজলে রাব্বি, আশিকুজ্জামান।
ফরচুন বরিশাল :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, ইব্রাহিম জাদরান, তামিম ইকবাল, শোয়েব মালিক, পল স্টার্লিং, ফখর জামান, মোহাম্মদ আমির, আব্বাস আফ্রিদি, দুনিথ ওয়েলালাগে।
ড্রাফট থেকে : মুশফিকুর রহিম, রকিবুল হাসান, সাইফুদ্দিন, সৌম্য সরকার, ইয়ানিক কারিয়া, কামরুল ইসলাম রাব্বি, প্রীতম কুমার, তাইজুল ইসলাম, প্রান্তিক নওরোজ নাবিল, দিনেশ চান্দিমাল।
সিলেট স্ট্রাইকার্স :
ধরে রাখা এবং সরাসরি চুক্তি : মাশরাফি বিন মর্তুজা, জাকির হাসান, তানজিম হাসান সাকিব, নাজমুল হোসেন শান্ত, রায়ান বার্ল, বেন কাটিং, হ্যারি টেক্টর।
ড্রাফট থেকে : মোহাম্মদ মিঠুন, রেজাউর রহমান রাজা, আরিফুল হক, ইয়াসির আলী রাব্বি, রিচার্ড এনগারাভা, দুশোন হেমন্থা, নাজমুল ইসলাম অপু, শফিকুল ইসলাম, নাঈম হাসান, জাওয়াদ রোয়েন, সালমান হোসেন ইমন।