ঢাকা ০৯:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রিজাইডিং অফিসারের কার্ডে ছবি নেই,সন্দেহ তাপসের

প্রিজাইডিং অফিসারের আইডি কার্ডে ছবি না থাকা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বরিশাল সিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস।

তিনি বলেছেন, “এখানে একটি লোকের আইডিতে ছবি থাকবে না কেন? তাহলে কীভাবে বুঝব যে, উনিই সেই লোক? এখানে অন্য এজেন্সির লোক ঢুকে ভোট প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে।”

সোমবার সকাল ৮টায় গোরস্থান রোডের সৈয়দ আব্দুল মান্নান ডিডিএফ আলিম মাদ্রাসা কেন্দ্রে নিজের ভোট দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের সামনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

এ সময় তিনি বলেন, “ভোট দিতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে, একটি বুথের ৮-১০ জন মহিলা এ অভিযোগ আমাকে করেছেন। আমি নিজেও ভোট দিতে গিয়ে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মেলেনি, তখন প্রিজাইডিং অফিসার সহায়তা করায় ভোট দিতে পেরেছি।”

নগরের ২২ নম্বর ওয়ার্ড কাজীপাড়া কেন্দ্রে ছাত্রলীগের কর্মীরা নারী ভোটারদের বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তাপস।

তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগের ছেলেরা রাস্তায় ভোটারদের ফিরিয়ে দিচ্ছে, বলছে, আপনাদের ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার দরকার নেই।”

নিজের পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ করে তাপস আরও বলেন, “পাসপোর্ট সাইজের ছবি আনছো কেন? স্ট্যাম্প সাইজ লাগবে। এভাবে নানান অজুহাত দেখাচ্ছে তারা। সুষ্ঠু ভোট নিয়ে একটু শঙ্কা রয়েছে। তারা চাচ্ছে ভোটটা যেন স্লো হয়, তাহলে আওয়ামী লীগ এসে ভোট দিবে অন্যরা দিবে না এরকমই সুবিধার জন্য হয়তো।”

সোমবার সকাল ৮টা থেকে নগরের ৩০টি ওয়ার্ডের ১২৬টি কেন্দ্রের ৮৯৪টি বুথে একযোগে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহন শুরু হয়।

এবারে বরিশালের এবারের সিটি নির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৭৬ হাজার ২৯৮ জন। যার মধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৩৮ হাজার ৮০৯ জন এবং পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৭ হাজার ৪৮৯ জন। হিসেব অনুযায়ী পুরুষের চেয়ে ১ হাজার ৩২০ জন নারী ভোটার বেশি।

ট্যাগ :

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

প্রিজাইডিং অফিসারের কার্ডে ছবি নেই,সন্দেহ তাপসের

আপডেট সময় : ০২:২৪:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ জুন ২০২৩

প্রিজাইডিং অফিসারের আইডি কার্ডে ছবি না থাকা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বরিশাল সিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস।

তিনি বলেছেন, “এখানে একটি লোকের আইডিতে ছবি থাকবে না কেন? তাহলে কীভাবে বুঝব যে, উনিই সেই লোক? এখানে অন্য এজেন্সির লোক ঢুকে ভোট প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে।”

সোমবার সকাল ৮টায় গোরস্থান রোডের সৈয়দ আব্দুল মান্নান ডিডিএফ আলিম মাদ্রাসা কেন্দ্রে নিজের ভোট দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের সামনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

এ সময় তিনি বলেন, “ভোট দিতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে, একটি বুথের ৮-১০ জন মহিলা এ অভিযোগ আমাকে করেছেন। আমি নিজেও ভোট দিতে গিয়ে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মেলেনি, তখন প্রিজাইডিং অফিসার সহায়তা করায় ভোট দিতে পেরেছি।”

নগরের ২২ নম্বর ওয়ার্ড কাজীপাড়া কেন্দ্রে ছাত্রলীগের কর্মীরা নারী ভোটারদের বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তাপস।

তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগের ছেলেরা রাস্তায় ভোটারদের ফিরিয়ে দিচ্ছে, বলছে, আপনাদের ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার দরকার নেই।”

নিজের পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ করে তাপস আরও বলেন, “পাসপোর্ট সাইজের ছবি আনছো কেন? স্ট্যাম্প সাইজ লাগবে। এভাবে নানান অজুহাত দেখাচ্ছে তারা। সুষ্ঠু ভোট নিয়ে একটু শঙ্কা রয়েছে। তারা চাচ্ছে ভোটটা যেন স্লো হয়, তাহলে আওয়ামী লীগ এসে ভোট দিবে অন্যরা দিবে না এরকমই সুবিধার জন্য হয়তো।”

সোমবার সকাল ৮টা থেকে নগরের ৩০টি ওয়ার্ডের ১২৬টি কেন্দ্রের ৮৯৪টি বুথে একযোগে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহন শুরু হয়।

এবারে বরিশালের এবারের সিটি নির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৭৬ হাজার ২৯৮ জন। যার মধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৩৮ হাজার ৮০৯ জন এবং পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৭ হাজার ৪৮৯ জন। হিসেব অনুযায়ী পুরুষের চেয়ে ১ হাজার ৩২০ জন নারী ভোটার বেশি।