ঢাকা ০৯:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পিরোজপুরে বিজয়ী প্রার্থীর গলায় ফুলের মালা দিলেন এসআই

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৬:৫১:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০২৩
  • ১১১ খবরটি দেখা হয়েছে

ইউপি চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে দিয়েছেন এক পুলিশ সদস্য। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার গুয়ারেখা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) উপনির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন গাজী মিজানুর রহমান।

জয়লাভের পর তাকে নেছারাবাদ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুজিবুল হক মালা পরিয়ে শুভেচ্ছা জানান। বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরানোর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

কিছুক্ষণ পর সেই ছবি ফেসবুক থেকে সরিয়ে ফেলা হলেও ততক্ষণে ছবিটি ভাইরাল হয়ে যায়। উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় সমর্থিত প্রার্থী ফারজানা আক্তারকে ৫১৭ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন গাজী মিজানুর রহমান।

এ ঘটনার পরপরই নির্বাচনে ওই পুলিশ সদস্যের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে পরাজিত প্রার্থী ফারজানা আক্তার বলেন, নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করতে পিরোজপুর থেকে ইন্সপেক্টর মো. মহিবুল্লাহ ও এসআই মুজিবুলের নেতৃত্বে কয়েকজন পুলিশ সদস্য আসেন।

নির্বাচনের সময় তারা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বিভাগীয় তদন্ত সাপেক্ষে শাস্তির দাবি জানাই।

এ ব্যাপারে পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মো. সফিউর রহমান জানান, নির্বাচনে পুলিশ সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করেছে। এখানে কেউ যদি তার ব্যত্যয় ঘটিয়ে কোনো কাজ করে থাকেন, তবে এটা তার একান্ত ব্যক্তিগত দায়। এখানে পুলিশ বিভাগের কোনো দায় নেই।

এ ঘটনায় এসআই মুজিবুল হককে শোকজ করে পিরোজপুর পুলিশ লাইনে যুক্ত করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী তার ব্যাপারে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। প্রার্থী ফারজানা আক্তার লিখিত অভিযোগ দিলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগ :

খুলনার দাকোপে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদযাপন হয়েছে

পিরোজপুরে বিজয়ী প্রার্থীর গলায় ফুলের মালা দিলেন এসআই

আপডেট সময় : ০৬:৫১:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০২৩

ইউপি চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে দিয়েছেন এক পুলিশ সদস্য। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার গুয়ারেখা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) উপনির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন গাজী মিজানুর রহমান।

জয়লাভের পর তাকে নেছারাবাদ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুজিবুল হক মালা পরিয়ে শুভেচ্ছা জানান। বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরানোর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

কিছুক্ষণ পর সেই ছবি ফেসবুক থেকে সরিয়ে ফেলা হলেও ততক্ষণে ছবিটি ভাইরাল হয়ে যায়। উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় সমর্থিত প্রার্থী ফারজানা আক্তারকে ৫১৭ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন গাজী মিজানুর রহমান।

এ ঘটনার পরপরই নির্বাচনে ওই পুলিশ সদস্যের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে পরাজিত প্রার্থী ফারজানা আক্তার বলেন, নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করতে পিরোজপুর থেকে ইন্সপেক্টর মো. মহিবুল্লাহ ও এসআই মুজিবুলের নেতৃত্বে কয়েকজন পুলিশ সদস্য আসেন।

নির্বাচনের সময় তারা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বিভাগীয় তদন্ত সাপেক্ষে শাস্তির দাবি জানাই।

এ ব্যাপারে পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মো. সফিউর রহমান জানান, নির্বাচনে পুলিশ সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করেছে। এখানে কেউ যদি তার ব্যত্যয় ঘটিয়ে কোনো কাজ করে থাকেন, তবে এটা তার একান্ত ব্যক্তিগত দায়। এখানে পুলিশ বিভাগের কোনো দায় নেই।

এ ঘটনায় এসআই মুজিবুল হককে শোকজ করে পিরোজপুর পুলিশ লাইনে যুক্ত করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী তার ব্যাপারে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। প্রার্থী ফারজানা আক্তার লিখিত অভিযোগ দিলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।