ঢাকা ০২:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পটুয়াখালীতে বিরামহীন বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া; ঘূর্ণিঝড় মিধিলি

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৪:৪৭:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০২৩
  • ১৩১ খবরটি দেখা হয়েছে

ঘূর্ণিঝড় মিধিলি’র প্রভাবে পটুয়াখালী জেলা এবং উপকূলজুড়ে বিরামহীন ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে।
পটুয়াখালীর আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে, নিম্মচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রুপ নিয়েছে। আজ দুপুরের পর উপকূলে আঘাত হানতে পারে। পায়রা ও মংলা সমুদ্র বন্দরে ইতিমধ্যে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বাতাসের তীব্রতা প্রচন্ড। সাগর ও নদীতে বইছে অস্বাভাবিক জোয়ার।
এদিকে দূর্যোগ মোকাবিলায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার রাতে জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে দূর্যোগ মোকাবিলায় সকল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে মাঠ পর্যায়ে কাজ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও প্রস্তুত রাখা হয়েছে নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্র এবং পর্যাপ্ত শুকনো খাবার। তবে শুক্রবার সকাল পযর্ন্ত আশ্রয়কেন্দ্রে লোকজন যেতে দেখা যায়নি।
জেলা প্রশাসক নূর কুতুবুল আলম জানিয়েছেন, দুর্যোগ মোকাবেলায় ৭০৩ টি সাইক্লোন শেল্টার ৩৫টি মুজিব কিল্লা, ৬৫০ টন চাল ও প্রায় ৮ লাখ নগদ টাকা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। দুর্যোগ পরবর্তী উদ্ধার কাজ পরিচালনার জন্য রেডক্রিসেন্ট ও সিপিপির ৯ হাজার স্বেচ্ছাসেবককে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলায় মোট ৭৬টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে।
কুয়াকাটা সমূদ্র সৈকতে ঢেউয়ের তান্ডব চলছে।মাছ শিকার বন্ধ রেখেছে জেলেরা। মাছ ধরার ট্রলার খাপড়াভাঙ্গা নদীর তীরবর্তী স্থানে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে।

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

পটুয়াখালীতে বিরামহীন বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া; ঘূর্ণিঝড় মিধিলি

আপডেট সময় : ০৪:৪৭:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০২৩

ঘূর্ণিঝড় মিধিলি’র প্রভাবে পটুয়াখালী জেলা এবং উপকূলজুড়ে বিরামহীন ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে।
পটুয়াখালীর আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে, নিম্মচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রুপ নিয়েছে। আজ দুপুরের পর উপকূলে আঘাত হানতে পারে। পায়রা ও মংলা সমুদ্র বন্দরে ইতিমধ্যে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বাতাসের তীব্রতা প্রচন্ড। সাগর ও নদীতে বইছে অস্বাভাবিক জোয়ার।
এদিকে দূর্যোগ মোকাবিলায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার রাতে জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে দূর্যোগ মোকাবিলায় সকল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে মাঠ পর্যায়ে কাজ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও প্রস্তুত রাখা হয়েছে নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্র এবং পর্যাপ্ত শুকনো খাবার। তবে শুক্রবার সকাল পযর্ন্ত আশ্রয়কেন্দ্রে লোকজন যেতে দেখা যায়নি।
জেলা প্রশাসক নূর কুতুবুল আলম জানিয়েছেন, দুর্যোগ মোকাবেলায় ৭০৩ টি সাইক্লোন শেল্টার ৩৫টি মুজিব কিল্লা, ৬৫০ টন চাল ও প্রায় ৮ লাখ নগদ টাকা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। দুর্যোগ পরবর্তী উদ্ধার কাজ পরিচালনার জন্য রেডক্রিসেন্ট ও সিপিপির ৯ হাজার স্বেচ্ছাসেবককে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলায় মোট ৭৬টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে।
কুয়াকাটা সমূদ্র সৈকতে ঢেউয়ের তান্ডব চলছে।মাছ শিকার বন্ধ রেখেছে জেলেরা। মাছ ধরার ট্রলার খাপড়াভাঙ্গা নদীর তীরবর্তী স্থানে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে।