ঢাকা ০৯:০৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পটুয়াখালীতে পরিবহন শ্রমিকদের মারধরের প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৯:১২:০৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুলাই ২০২৩
  • ৪৪ খবরটি দেখা হয়েছে

পটুয়াখালী সেতুতে অতিরিক্ত টোল আদায় ও পরিবহন শ্রমিকদের মারধরের প্রতিবাদে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক অবরোধ করেছে পরিবহন শ্রমিকরা।

আজ রোববার (১৬ জুলাই) দুপুরের পর টোল দেওয়া নেওয়া নিয়ে গাড়ী ভাংচুর ও সুপারভাইজারকে মারধরের প্রতিবাদে প্রায় দুই ঘন্টা ধরে পটুয়াখালী সেতুর টোল প্লাজার সামনের সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা।

পরিবহন শ্রমিক এবং স্থানীয়রা জানিয়েছেন, অধিকাংশ মিনি ট্রাক থেকে দেড়শ থেকে ৩০০ টাকা টোল আদায় করেছে পটুয়াখালী সেতুর টোলপ্লাজার লোকজন। এ নিয়ে যানবাহন চালকদের সাথে বাক বিতন্ডার ঘটনা ঘটেছে। হঠাৎ করেই দ্বিগুণ ভাড়া হওয়ায় যানবাহন চালকরা ভোগান্তিতে পরেছে। বাসের জন্য ১৩৫ টাকা ভাড়া নির্ধারিত থাকলেও নেয়া হচ্ছে ৩০০ টাকা।

মিনিট্রাক চালক আব্দুল মান্নান জানিয়েছেন,‘আমাদের গাড়ীর আগে টোল ছিল ৬০ টাকা। সরকার টোল বৃদ্ধি করেছে তাই এখন টোল নির্ধারন করা হয়েছে ১১৫ টাকা। কিন্তু আমাদের কাছ থেকে ১৫০ টাকা করে টোল নেয়া হচ্ছে।

মারধরের শিকার জুথী পরিবহনের সুপারভাইজার মোঃ শাকিল জানায়, আমরা টোল দিয়ে যাওয়ার সময় আরও বেশি টোল দাবী করে। এর প্রতিবাদ করলে আমাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি মারে।

জানা যায়, ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরে পটুয়াখালী সড়ক বিভাগাধীন জাতীয় মহা সড়কের (এন-৮) এর পটুয়াখালী সেতুর পারাপার টোল আদায়ের জন্য ৭ জুলাই ২৩ থেকে ৩০ জুন ২০২৬ পর্যন্ত ১০৯০ দিন সময়ের জন্য মেসার্স বেপারী ট্রেডার্স এর সাথে চৌত্রিশ কোটি একুশ লক্ষ সাতাশি হাজার পাঁচশত টাকা মূল্যের চুক্তি সম্পাদন হয়। চুক্তি অনুযায়ী পটুয়াখালী সড়ক বিভাগ সেতুর যে টোল নির্ধারন করেছে তার অধিক টাকা টোল নিয়েছে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

পটুয়াখালী সদর থানার ওসি জসীম উদ্দিন বলেন, টোল আদায় নিয়ে শ্রমিকদের সঙ্গে একটি সমস্যা হয়েছে। সড়ক অবরোধ করে রেখেছিল শ্রমিকরা। পরে আমরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি।

এদিকে ইজারাদার মেসার্স বেপারী ট্রেডার্স এর প্রোপাইটার আবুল বাশার বলেন, ‘প্রথম প্রথম তো সে কারণে কিছুটা ভুলভ্রান্তি হচ্ছে, কয়েকদিন পর ঠিক হয়ে যাবে।’

পটুয়াখালী সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ এম আতিক উল্লাহ বলেন, সরকার নির্ধারিত রেটের বেশি টোল আদায় করার কোন সুযোগ নেই। যেহেতু এ বিষয়ে অভিযোগ উঠেছে, সে কারণে বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগ :

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

পটুয়াখালীতে পরিবহন শ্রমিকদের মারধরের প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ

আপডেট সময় : ০৯:১২:০৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুলাই ২০২৩

পটুয়াখালী সেতুতে অতিরিক্ত টোল আদায় ও পরিবহন শ্রমিকদের মারধরের প্রতিবাদে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক অবরোধ করেছে পরিবহন শ্রমিকরা।

আজ রোববার (১৬ জুলাই) দুপুরের পর টোল দেওয়া নেওয়া নিয়ে গাড়ী ভাংচুর ও সুপারভাইজারকে মারধরের প্রতিবাদে প্রায় দুই ঘন্টা ধরে পটুয়াখালী সেতুর টোল প্লাজার সামনের সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা।

পরিবহন শ্রমিক এবং স্থানীয়রা জানিয়েছেন, অধিকাংশ মিনি ট্রাক থেকে দেড়শ থেকে ৩০০ টাকা টোল আদায় করেছে পটুয়াখালী সেতুর টোলপ্লাজার লোকজন। এ নিয়ে যানবাহন চালকদের সাথে বাক বিতন্ডার ঘটনা ঘটেছে। হঠাৎ করেই দ্বিগুণ ভাড়া হওয়ায় যানবাহন চালকরা ভোগান্তিতে পরেছে। বাসের জন্য ১৩৫ টাকা ভাড়া নির্ধারিত থাকলেও নেয়া হচ্ছে ৩০০ টাকা।

মিনিট্রাক চালক আব্দুল মান্নান জানিয়েছেন,‘আমাদের গাড়ীর আগে টোল ছিল ৬০ টাকা। সরকার টোল বৃদ্ধি করেছে তাই এখন টোল নির্ধারন করা হয়েছে ১১৫ টাকা। কিন্তু আমাদের কাছ থেকে ১৫০ টাকা করে টোল নেয়া হচ্ছে।

মারধরের শিকার জুথী পরিবহনের সুপারভাইজার মোঃ শাকিল জানায়, আমরা টোল দিয়ে যাওয়ার সময় আরও বেশি টোল দাবী করে। এর প্রতিবাদ করলে আমাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি মারে।

জানা যায়, ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরে পটুয়াখালী সড়ক বিভাগাধীন জাতীয় মহা সড়কের (এন-৮) এর পটুয়াখালী সেতুর পারাপার টোল আদায়ের জন্য ৭ জুলাই ২৩ থেকে ৩০ জুন ২০২৬ পর্যন্ত ১০৯০ দিন সময়ের জন্য মেসার্স বেপারী ট্রেডার্স এর সাথে চৌত্রিশ কোটি একুশ লক্ষ সাতাশি হাজার পাঁচশত টাকা মূল্যের চুক্তি সম্পাদন হয়। চুক্তি অনুযায়ী পটুয়াখালী সড়ক বিভাগ সেতুর যে টোল নির্ধারন করেছে তার অধিক টাকা টোল নিয়েছে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

পটুয়াখালী সদর থানার ওসি জসীম উদ্দিন বলেন, টোল আদায় নিয়ে শ্রমিকদের সঙ্গে একটি সমস্যা হয়েছে। সড়ক অবরোধ করে রেখেছিল শ্রমিকরা। পরে আমরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি।

এদিকে ইজারাদার মেসার্স বেপারী ট্রেডার্স এর প্রোপাইটার আবুল বাশার বলেন, ‘প্রথম প্রথম তো সে কারণে কিছুটা ভুলভ্রান্তি হচ্ছে, কয়েকদিন পর ঠিক হয়ে যাবে।’

পটুয়াখালী সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ এম আতিক উল্লাহ বলেন, সরকার নির্ধারিত রেটের বেশি টোল আদায় করার কোন সুযোগ নেই। যেহেতু এ বিষয়ে অভিযোগ উঠেছে, সে কারণে বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।