ঢাকা ০৯:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পটুয়াখালীতে ডেঙ্গু পরিস্থিতি অপরিবর্তিত,১ জন আইসিইউতে

পটুয়াখালীতে ডেঙ্গু পরিস্থিতি অপরিবর্তি রয়েছে। গত দুইদিনে নতুন ৩৫ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়ছে। ৩০ উর্ধ্বো এক গৃহবধূ পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসারত আছেন। এ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত ডেঙ্গু ওয়ার্ডে নতুন চারজন ভর্তিসহ দুই শিশুসহ ১৬ জন চিকিৎসারত আছে বলে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডাঃ দিলরুবা ইয়াসমিন লিজা।
সোমবার পটুয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের দেয়া তথ্য সূত্রে জানা গেছে, রবিবার সকাল ৮টা থেকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু ওয়ার্ডে নতুন ৪ জনসহ জেলায় ৩৫ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৮ জন, বাউফলে ৪ জন, দুমকীতে ১ জন, গলাচিপায় ১ জন। পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬ জনসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬৯ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসারত আছে বলে সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম কবির হাসান জানান। চিকিৎসারত ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬ জন, দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩৭ জন, গলাচিপায় ১ জন, কলাপাড়ায় ৪ জন ও দুমকী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৪ জন। গত জানুয়ারী হতে এ পর্যন্ত (১০জুলাই) জেলায় ১৯৯ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছিল এবং ১৩৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন বলেও সিভিল সার্জন জানান।
পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার আঠারগাছিয়া ইউনিয়নের গৃহবধূ নিলুফা বেগম ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে ৭ জুলাই ভর্তি হয়। তার অবস্থা আশংকাজনক হলে ৮ জুলাই তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকদের ও নার্সদের চিকিৎসা সেবায় অনেকটা সুস্থ হচ্ছেন বলে গৃহবধূর স্বামী মোতালেব হাওলাদার জানান।
এদিকে ডেঙ্গু প্রকোপ বৃদ্ধির খবরে পটুয়াখালী পৌরসভার মেয়র মহিউদ্দিন আহম্মেদ মশা নিধনে মাঠে নেমেছেন। তিনি ৯ জুলাই বিকাল ৩ টায় পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ এলাকার বিভিন্ন স্থানে ফগার মেশিন দিয়ে মশা নিধন ঔষধ স্প্রে করে ডেঙ্গু মশা নিধন কার্যক্রম শুরু করেন।

ট্যাগ :

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

পটুয়াখালীতে ডেঙ্গু পরিস্থিতি অপরিবর্তিত,১ জন আইসিইউতে

আপডেট সময় : ১০:০৮:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩

পটুয়াখালীতে ডেঙ্গু পরিস্থিতি অপরিবর্তি রয়েছে। গত দুইদিনে নতুন ৩৫ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়ছে। ৩০ উর্ধ্বো এক গৃহবধূ পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসারত আছেন। এ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত ডেঙ্গু ওয়ার্ডে নতুন চারজন ভর্তিসহ দুই শিশুসহ ১৬ জন চিকিৎসারত আছে বলে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডাঃ দিলরুবা ইয়াসমিন লিজা।
সোমবার পটুয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের দেয়া তথ্য সূত্রে জানা গেছে, রবিবার সকাল ৮টা থেকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু ওয়ার্ডে নতুন ৪ জনসহ জেলায় ৩৫ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৮ জন, বাউফলে ৪ জন, দুমকীতে ১ জন, গলাচিপায় ১ জন। পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬ জনসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬৯ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসারত আছে বলে সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম কবির হাসান জানান। চিকিৎসারত ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬ জন, দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩৭ জন, গলাচিপায় ১ জন, কলাপাড়ায় ৪ জন ও দুমকী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৪ জন। গত জানুয়ারী হতে এ পর্যন্ত (১০জুলাই) জেলায় ১৯৯ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছিল এবং ১৩৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন বলেও সিভিল সার্জন জানান।
পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার আঠারগাছিয়া ইউনিয়নের গৃহবধূ নিলুফা বেগম ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে ৭ জুলাই ভর্তি হয়। তার অবস্থা আশংকাজনক হলে ৮ জুলাই তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকদের ও নার্সদের চিকিৎসা সেবায় অনেকটা সুস্থ হচ্ছেন বলে গৃহবধূর স্বামী মোতালেব হাওলাদার জানান।
এদিকে ডেঙ্গু প্রকোপ বৃদ্ধির খবরে পটুয়াখালী পৌরসভার মেয়র মহিউদ্দিন আহম্মেদ মশা নিধনে মাঠে নেমেছেন। তিনি ৯ জুলাই বিকাল ৩ টায় পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ এলাকার বিভিন্ন স্থানে ফগার মেশিন দিয়ে মশা নিধন ঔষধ স্প্রে করে ডেঙ্গু মশা নিধন কার্যক্রম শুরু করেন।