ঢাকা ০৭:৩৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরের সুস্বাদু লিচু রফতানি হচ্ছে ফ্রান্সে

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ১২:৫০:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩
  • ৪৭ খবরটি দেখা হয়েছে

এই প্রথম দিনাজপুরের সুস্বাদু বেদানা ও চায়না-থ্রি লিচুর একটি চালান এখান থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্রান্সে রফতানির জন্য পাঠানো হয়েছে। 
দিনাজপুর চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি রেজা হুমায়ুন চৌধুরী শামীম আজ মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় সাংবাদিকদের বলেন, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি এমপির উদ্যোগে দিনাজপুরে লিচু বিভিন্ন দেশে রফতানির জন্য আলোচনা চালিয়ে এই উদ্যোগ সফল করেছেন।

দিনাজপুরে উৎপাদিত এই বিপুল পরিমাণ লিচু মধুমাস হিসেবে পরিচিত জ্যৈষ্ঠমাসে বাজারে আসে। স্বল্প সময়ের মধ্যে এই সুস্বাদু লিচু শেষ হয়ে যায়। লিচু সংরক্ষণের জন্য দিনাজপুরে একটি অত্যাধুনিক হিমাগার এবং লিচু ও আমের পৃথক মৌসুমী বাজার স্থাপনের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে দিনাজপুর জেলা প্রশাসককে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নিদের্শ দিয়েছেন বলে তিনি নিশ্চিত করেন।


সুত্রটি জানায়, দিনাজপুরের লিচু সবার কাছেই সমাদৃত। এবার এই জেলার লিচু প্রথমবারের মতো পাঠানো হচ্ছে ফ্রান্সে। এতে লাভবান হবেন কৃষকরা, উপার্জিত হবে বৈদেশিক মুদ্রা। আজ মঙ্গলবার দুপুরে প্রথম বারে মত ১৬ হাজার পিস বেদানা লিচু দিনাজপুর থেকে পাঠানো হয়েছে ঢাকায়। যেখান থেকে বিমানযোগে সেগুলো ফ্রান্সে পৌঁছাবে। 


ফ্রান্সে লিচু রপ্তানির বিষয় উদ্বোধন করেন আজ বেলা ১১টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দেবাশীষ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আনিচুর রহমান, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নুরুজ্জামান, বিরল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রমিজ আলম, লিচু চাষি আফজাল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 


দিনাজপুর সদর উপজেলার মাসিমপুর গ্রামের আফজাল হোসেনের বাগান থেকে এসব লিচু নেয়া হয়েছে। দিনাজপুর কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক নুরুজ্জামান মিয়া বলছেন, লিচুর মান ঠিক রেখে এই চালান পাঠানো হচ্ছে। এর পরের চালানে ১০ হাজার পিস বেদানা এবং সাড়ে ৫ লাখ পিস চায়না-থ্রি জাতের লিচু পাঠানো প্রক্রিয়া চলছে।


দিনাজপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রমিজ আলম জানান, প্রায় ৩০০ কেজি ওজনের এই লিচুগুলো বিশেষভাবে প্যাকেট করে এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত গাড়িতে করে ঢাকায় পৌঁছাবে আজ ম বিকেলের মধ্যে, সেখান থেকে আবারও প্যাকেজিং করে কার্গোর মাধ্যমে আজ মঙ্গলবার রাতে ফ্রান্সে চলে যাবে।


প্রাইম এশিয়া নামের একটি আমদানি-রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এসব লিচু ফ্রান্সে যাবে। বাংলাদেশ থেকে এসব লিচু রফতানিকারক মিন্টু ইসলাম লিচুগুলো পাঠাচ্ছেন এবং ফ্রান্সের আমদানিকারক ও প্রতিষ্ঠানটির সত্ত্বাধিকারী শেখ মাসুম লিচুগুলো গ্রহণ করবেন।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ বলেন, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার মো. হাবিবুর রহমান ফ্রান্স হাইকমিশনার সাথে যোগাযোগ করে লিচু রফতানির প্রক্রিয়া শেষ করেন।

ফ্রান্স ছাড়াও আরও কয়েকটি দেশে দিনাজপুরের লিচু পাঠানোর প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এর মাধ্যমে দিনাজপুরের লিচু রফতানির পথ তৈরি হলো। আগামীতে অধিক পরিমাণে লিচু দিনাজপুর থেকে রফতানি করা যাবে। যাতে করে কৃষকরা লাভবান হবেন, বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জিত হবে।

এটিতে আমরা সফল হতে পারলে আগামীতে আরও লিচু রফতানি করা হবে। কৃষি কর্মকর্তাদের তদারকিতে ভালো মানের লিচু সংগ্রহ করে ফ্রান্সে পাঠানো হচ্ছে। লিচুগুলো ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ফ্রান্সে পৌঁছাবে।


লিচু চাষি আফজাল হোসেন বলেন, ‘আমার বাগানের লিচু প্রথমবারের মতো বিদেশে যাচ্ছে। একটি এমন এক অনুভূতি যা বলে বোঝানো যাবে না। অনেক আনন্দ ও খুশি লাগছে। এসব লিচু অনেক যতেœ বড় করা হয়েছে।


দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত আঞ্চলিক পরিচালক প্রদীপ কুমার গুহ বলেন, দিনাজপুরের লিচুর আলাদা সুখ্যাতি রয়েছে। এবার প্রায় সাড়ে ৫ হাজার হেক্টর জুড়ে জেলায় লিচু বাগান রয়েছে।

এখান থেকে ৩১ হাজার ৭৯০ টন লিচু উৎপাদিত হবে। দিনাজপুরে যে পরিমাণে লিচু হয় তার চার ভাগের তিন ভাগই রফতানি করা সম্ভব। এর মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা দেশে আনার সম্ভাবনা রয়েছে। 

ট্যাগ :

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

দিনাজপুরের সুস্বাদু লিচু রফতানি হচ্ছে ফ্রান্সে

আপডেট সময় : ১২:৫০:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩

এই প্রথম দিনাজপুরের সুস্বাদু বেদানা ও চায়না-থ্রি লিচুর একটি চালান এখান থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্রান্সে রফতানির জন্য পাঠানো হয়েছে। 
দিনাজপুর চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি রেজা হুমায়ুন চৌধুরী শামীম আজ মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় সাংবাদিকদের বলেন, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি এমপির উদ্যোগে দিনাজপুরে লিচু বিভিন্ন দেশে রফতানির জন্য আলোচনা চালিয়ে এই উদ্যোগ সফল করেছেন।

দিনাজপুরে উৎপাদিত এই বিপুল পরিমাণ লিচু মধুমাস হিসেবে পরিচিত জ্যৈষ্ঠমাসে বাজারে আসে। স্বল্প সময়ের মধ্যে এই সুস্বাদু লিচু শেষ হয়ে যায়। লিচু সংরক্ষণের জন্য দিনাজপুরে একটি অত্যাধুনিক হিমাগার এবং লিচু ও আমের পৃথক মৌসুমী বাজার স্থাপনের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে দিনাজপুর জেলা প্রশাসককে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নিদের্শ দিয়েছেন বলে তিনি নিশ্চিত করেন।


সুত্রটি জানায়, দিনাজপুরের লিচু সবার কাছেই সমাদৃত। এবার এই জেলার লিচু প্রথমবারের মতো পাঠানো হচ্ছে ফ্রান্সে। এতে লাভবান হবেন কৃষকরা, উপার্জিত হবে বৈদেশিক মুদ্রা। আজ মঙ্গলবার দুপুরে প্রথম বারে মত ১৬ হাজার পিস বেদানা লিচু দিনাজপুর থেকে পাঠানো হয়েছে ঢাকায়। যেখান থেকে বিমানযোগে সেগুলো ফ্রান্সে পৌঁছাবে। 


ফ্রান্সে লিচু রপ্তানির বিষয় উদ্বোধন করেন আজ বেলা ১১টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দেবাশীষ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আনিচুর রহমান, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নুরুজ্জামান, বিরল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রমিজ আলম, লিচু চাষি আফজাল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 


দিনাজপুর সদর উপজেলার মাসিমপুর গ্রামের আফজাল হোসেনের বাগান থেকে এসব লিচু নেয়া হয়েছে। দিনাজপুর কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক নুরুজ্জামান মিয়া বলছেন, লিচুর মান ঠিক রেখে এই চালান পাঠানো হচ্ছে। এর পরের চালানে ১০ হাজার পিস বেদানা এবং সাড়ে ৫ লাখ পিস চায়না-থ্রি জাতের লিচু পাঠানো প্রক্রিয়া চলছে।


দিনাজপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রমিজ আলম জানান, প্রায় ৩০০ কেজি ওজনের এই লিচুগুলো বিশেষভাবে প্যাকেট করে এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত গাড়িতে করে ঢাকায় পৌঁছাবে আজ ম বিকেলের মধ্যে, সেখান থেকে আবারও প্যাকেজিং করে কার্গোর মাধ্যমে আজ মঙ্গলবার রাতে ফ্রান্সে চলে যাবে।


প্রাইম এশিয়া নামের একটি আমদানি-রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এসব লিচু ফ্রান্সে যাবে। বাংলাদেশ থেকে এসব লিচু রফতানিকারক মিন্টু ইসলাম লিচুগুলো পাঠাচ্ছেন এবং ফ্রান্সের আমদানিকারক ও প্রতিষ্ঠানটির সত্ত্বাধিকারী শেখ মাসুম লিচুগুলো গ্রহণ করবেন।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ বলেন, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার মো. হাবিবুর রহমান ফ্রান্স হাইকমিশনার সাথে যোগাযোগ করে লিচু রফতানির প্রক্রিয়া শেষ করেন।

ফ্রান্স ছাড়াও আরও কয়েকটি দেশে দিনাজপুরের লিচু পাঠানোর প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এর মাধ্যমে দিনাজপুরের লিচু রফতানির পথ তৈরি হলো। আগামীতে অধিক পরিমাণে লিচু দিনাজপুর থেকে রফতানি করা যাবে। যাতে করে কৃষকরা লাভবান হবেন, বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জিত হবে।

এটিতে আমরা সফল হতে পারলে আগামীতে আরও লিচু রফতানি করা হবে। কৃষি কর্মকর্তাদের তদারকিতে ভালো মানের লিচু সংগ্রহ করে ফ্রান্সে পাঠানো হচ্ছে। লিচুগুলো ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ফ্রান্সে পৌঁছাবে।


লিচু চাষি আফজাল হোসেন বলেন, ‘আমার বাগানের লিচু প্রথমবারের মতো বিদেশে যাচ্ছে। একটি এমন এক অনুভূতি যা বলে বোঝানো যাবে না। অনেক আনন্দ ও খুশি লাগছে। এসব লিচু অনেক যতেœ বড় করা হয়েছে।


দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত আঞ্চলিক পরিচালক প্রদীপ কুমার গুহ বলেন, দিনাজপুরের লিচুর আলাদা সুখ্যাতি রয়েছে। এবার প্রায় সাড়ে ৫ হাজার হেক্টর জুড়ে জেলায় লিচু বাগান রয়েছে।

এখান থেকে ৩১ হাজার ৭৯০ টন লিচু উৎপাদিত হবে। দিনাজপুরে যে পরিমাণে লিচু হয় তার চার ভাগের তিন ভাগই রফতানি করা সম্ভব। এর মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা দেশে আনার সম্ভাবনা রয়েছে।