ঢাকা ০৮:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

তাবলিগ জামাতের ৫ দিনব্যাপী জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠিত

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৫:৫২:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ১৪৩ খবরটি দেখা হয়েছে

রাজধানীতে তুরাগের দিয়াবাড়ীতে বিশ্ব তাবলিগ জামাতের ৫ দিনব্যাপী জোড় ইজতেমা আজ সকালে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। মোনাজাতে দেশি-বিদেশি বিপুল সংখ্যক মুসল্লি অংশ গ্রহণ করেছেন।
আজ সকাল ৯টায় মোনাজাত শুরু হয়ে সকাল সাড়ে ৯টায় শেষ হয়। আধাঘণ্টা ব্যাপী বিশেষ মোনাজাতে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের সকল মানুষের সুখ, শান্তি, কল্যাণ, অগ্রগতি, ভ্রাতৃত্ববোধ ও মঙ্গল কামনা করা হয়।  মোনাজাত পরিচালনা করেন তাবলীগ জামাতের শীর্ষ মুরুব্বি ভারতের মাওলানা ইব্রাহীম দৌল্লাহ। 
ইজতেমা সূত্র জানায়, গত শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তাবলিগ জামাতের পুরনো সাথীদের নিয়ে শুরু হয়েছে এবারের জোড় ইজতেমা।  ৫৭তম বিশ্ব ইজতেমাকে সামনে রেখে প্রতি বছরের ন্যায় এ জোড় ইজতেমার আয়োজন করা হয়। সাধারণত বিশ্ব ইজতেমার আগে জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। তাবলিগের শুধুমাত্র তিন চিল্লার সাথীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এ জোড় ইজতেমা।
তাবলিগ জামাতের মুরব্বি ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজ আহমেদ জানান, গত  শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তাবলিগ জামাতের পুরনো সাথীদের নিয়ে শুরু হয়েছে এবারের জোড় ইজতেমা। আজ মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিশেষ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে  ৫ দিন ব্যাপী জোড় ইজতেমার সমাপ্ত হয়েছে।  
জোড় ইজতেমায় আগত দেশী বিদেশী মুসল্লিরা জানান, ‘আমরা আজ আশা করছি, আখেরি মোনাজাতে প্রায় ৩ লাখের বেশি মানুষ শরীক হয়েছেন।’
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এবারের জোড় ইজতেমায় ২০ থেকে ২৫টির বেশি দেশের মেহমান ও মুরব্বিরা উপস্থিত হয়েছেন। এরমধ্যে সৌদি আরব, সুদান, মুজাম্বিক, আমেরিকা, ভারত, সাউথ আফ্রিকা, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, কাতার, বেলজিয়াম, মরক্কোসহ বেশকিছু দেশ রয়েছে। বিদেশি মেহমানদের সংখ্যা ৫ থেকে ৬শ’র মতো।
এছাড়াও ভারত থেকে মাওলানা ইবরাহিম দেওলা, মাওলানা আহমাদ লাট, ভাই ফারুক আহমেদ, মাওলানা ইসহাক, মাওলানা যুবায়েরসহ অনেক মুরব্বি জোড় ময়দানে উপস্থিত হয়েছেন।
এদিকে, বিশ্বইজতেমা সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর অদূরে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত বিশ্ব ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হবে ৫৭তম বিশ্ব ইজতেমা। ইজতেমার প্রথম পর্ব ২ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব  ৯ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
সূত্র আরো জানান, প্রথম পর্বের ইজতেমায় আলমী শূরাপন্থী মুসল্লিরা অংশ নেবেন। তিন দিনের প্রথম পর্বের ইজতেমা শেষ হবে ৪ ফেব্রুয়ারি। ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা। চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এতে মাওলানা সাদ কান্ধলভির অনুসারী মুসল্লিরা অংশ নেবেন।
অপরদিকে, আজ দুপুর পৌনে ২ টায় ডিএমপির তুরাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মওদূত হাওলাদার জানান, ৫ দিনের জোড় ইজতেমাকে কেন্দ্র করে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে উত্তরা বিভাগের তুরাগ থানার বিপুল সংখ্যক পুলিশ। 

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

তাবলিগ জামাতের ৫ দিনব্যাপী জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৫:৫২:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩

রাজধানীতে তুরাগের দিয়াবাড়ীতে বিশ্ব তাবলিগ জামাতের ৫ দিনব্যাপী জোড় ইজতেমা আজ সকালে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। মোনাজাতে দেশি-বিদেশি বিপুল সংখ্যক মুসল্লি অংশ গ্রহণ করেছেন।
আজ সকাল ৯টায় মোনাজাত শুরু হয়ে সকাল সাড়ে ৯টায় শেষ হয়। আধাঘণ্টা ব্যাপী বিশেষ মোনাজাতে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের সকল মানুষের সুখ, শান্তি, কল্যাণ, অগ্রগতি, ভ্রাতৃত্ববোধ ও মঙ্গল কামনা করা হয়।  মোনাজাত পরিচালনা করেন তাবলীগ জামাতের শীর্ষ মুরুব্বি ভারতের মাওলানা ইব্রাহীম দৌল্লাহ। 
ইজতেমা সূত্র জানায়, গত শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তাবলিগ জামাতের পুরনো সাথীদের নিয়ে শুরু হয়েছে এবারের জোড় ইজতেমা।  ৫৭তম বিশ্ব ইজতেমাকে সামনে রেখে প্রতি বছরের ন্যায় এ জোড় ইজতেমার আয়োজন করা হয়। সাধারণত বিশ্ব ইজতেমার আগে জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। তাবলিগের শুধুমাত্র তিন চিল্লার সাথীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এ জোড় ইজতেমা।
তাবলিগ জামাতের মুরব্বি ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজ আহমেদ জানান, গত  শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তাবলিগ জামাতের পুরনো সাথীদের নিয়ে শুরু হয়েছে এবারের জোড় ইজতেমা। আজ মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিশেষ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে  ৫ দিন ব্যাপী জোড় ইজতেমার সমাপ্ত হয়েছে।  
জোড় ইজতেমায় আগত দেশী বিদেশী মুসল্লিরা জানান, ‘আমরা আজ আশা করছি, আখেরি মোনাজাতে প্রায় ৩ লাখের বেশি মানুষ শরীক হয়েছেন।’
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এবারের জোড় ইজতেমায় ২০ থেকে ২৫টির বেশি দেশের মেহমান ও মুরব্বিরা উপস্থিত হয়েছেন। এরমধ্যে সৌদি আরব, সুদান, মুজাম্বিক, আমেরিকা, ভারত, সাউথ আফ্রিকা, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, কাতার, বেলজিয়াম, মরক্কোসহ বেশকিছু দেশ রয়েছে। বিদেশি মেহমানদের সংখ্যা ৫ থেকে ৬শ’র মতো।
এছাড়াও ভারত থেকে মাওলানা ইবরাহিম দেওলা, মাওলানা আহমাদ লাট, ভাই ফারুক আহমেদ, মাওলানা ইসহাক, মাওলানা যুবায়েরসহ অনেক মুরব্বি জোড় ময়দানে উপস্থিত হয়েছেন।
এদিকে, বিশ্বইজতেমা সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর অদূরে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত বিশ্ব ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হবে ৫৭তম বিশ্ব ইজতেমা। ইজতেমার প্রথম পর্ব ২ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব  ৯ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
সূত্র আরো জানান, প্রথম পর্বের ইজতেমায় আলমী শূরাপন্থী মুসল্লিরা অংশ নেবেন। তিন দিনের প্রথম পর্বের ইজতেমা শেষ হবে ৪ ফেব্রুয়ারি। ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা। চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এতে মাওলানা সাদ কান্ধলভির অনুসারী মুসল্লিরা অংশ নেবেন।
অপরদিকে, আজ দুপুর পৌনে ২ টায় ডিএমপির তুরাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মওদূত হাওলাদার জানান, ৫ দিনের জোড় ইজতেমাকে কেন্দ্র করে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে উত্তরা বিভাগের তুরাগ থানার বিপুল সংখ্যক পুলিশ।