ঢাকা ০৯:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ছেলে ও মেয়েদের টুর্নামেন্টে সমান প্রাইজমানি দেয়ার ঘোষনা আইসিসির

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১২:৫০:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুলাই ২০২৩
  • ৫৫ খবরটি দেখা হয়েছে

নিজেদের যেকোন টুর্নামেন্টে ছেলে ও মেয়েদের সমান প্রাইজমানি  দেয়ার ঘোষনা দিয়েছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্টারন্যাশান ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবানে অনুষ্ঠিত  আইসিসির বার্ষিক  সম্মেলনের  এ সিদ্ধান্ত  এক  বিবৃতিতে জানিয়েছে সংস্থাটি।

এই সিদ্ধান্তকে  ক্রিকেট ইতিহাসে  একটি গুরুত্বপূর্ন  ঘটনা হিসেবে  উল্লেখ করে আইসিসির চেয়ারম্যান গ্রেগ বার্কলে বলেন, ‘খেলার ইতিহাসে এটি একটি গুরুত্বপূর্ন ঘটনা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আনন্দিত যে, আইসিসি  বা বৈশ্বিক ইভেন্টে পুরুষ ও নারী ক্রিকেটাররা এখন থেকে সমানভাবে পুরস্কৃত হবে।’
তিনি আরো বলেন ‘২০১৭ সাল থেকে অর্থ পুরস্কারের বাড়িয়ে আমরা সমান জায়গায় পৌঁছাতে চেয়েছি। এখন থেকে আইসিসির নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ীরা পুরুষদের সমান অর্থ পাবে।’

সালের ছেলেদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড পায় ১৬ লাখ ডলার, রানার্সআপ পাকিস্তন ৮ লাখ ডলার। মেয়েদের বিশ্বকাপের বেলায় এই অঙ্ক ছিল যথাক্রমে ১০ লাখ ও ৫ লাখ।

ট্যাগ :

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

ছেলে ও মেয়েদের টুর্নামেন্টে সমান প্রাইজমানি দেয়ার ঘোষনা আইসিসির

আপডেট সময় : ১২:৫০:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুলাই ২০২৩

নিজেদের যেকোন টুর্নামেন্টে ছেলে ও মেয়েদের সমান প্রাইজমানি  দেয়ার ঘোষনা দিয়েছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্টারন্যাশান ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবানে অনুষ্ঠিত  আইসিসির বার্ষিক  সম্মেলনের  এ সিদ্ধান্ত  এক  বিবৃতিতে জানিয়েছে সংস্থাটি।

এই সিদ্ধান্তকে  ক্রিকেট ইতিহাসে  একটি গুরুত্বপূর্ন  ঘটনা হিসেবে  উল্লেখ করে আইসিসির চেয়ারম্যান গ্রেগ বার্কলে বলেন, ‘খেলার ইতিহাসে এটি একটি গুরুত্বপূর্ন ঘটনা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আনন্দিত যে, আইসিসি  বা বৈশ্বিক ইভেন্টে পুরুষ ও নারী ক্রিকেটাররা এখন থেকে সমানভাবে পুরস্কৃত হবে।’
তিনি আরো বলেন ‘২০১৭ সাল থেকে অর্থ পুরস্কারের বাড়িয়ে আমরা সমান জায়গায় পৌঁছাতে চেয়েছি। এখন থেকে আইসিসির নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ীরা পুরুষদের সমান অর্থ পাবে।’

সালের ছেলেদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড পায় ১৬ লাখ ডলার, রানার্সআপ পাকিস্তন ৮ লাখ ডলার। মেয়েদের বিশ্বকাপের বেলায় এই অঙ্ক ছিল যথাক্রমে ১০ লাখ ও ৫ লাখ।