ঢাকা ০৫:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কক্সবাজার টু সেন্টমার্টিন নৌপথে জাহাজ চলাচল শুরু আজ

  • স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৪:২৭:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩
  • ৭১ খবরটি দেখা হয়েছে

কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু হয়েছে। টেকনাফের দমদমিয়া জেটিঘাট থেকে আজ সকালে তিনটি জাহাজে ১ হাজার ৩০০ পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে গেছেন। ঘূর্ণিঝড় হামুনের কারণে দুই দিন বন্ধ থাকার পর এই রুটে জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু হলো। 
টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আদনান চৌধুরী জানান, আজ সকাল থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজসহ সব ধরণের নৌযান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে। ইউএনও জানান, জাহাজ চলাচল শুরু হওয়ায় সেন্টমার্টিনে স্বেচ্ছায় থেকে যাওয়া শতাধিক পর্যটক আজ ফিরতে পারবেন। 
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ টেকনাফের ট্রাফিক সুপারভাইজার মো. জহির উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, টেকনাফের দমদমিয়া জেটিঘাট থেকে আজ সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ‘কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন’ জাহাজে ১৭৫ জন, ‘কেয়ারি সিন্দাবাদে’ ৩৬৭ ও ‘এমভি বার আউলিয়া’ জাহাজে করে ৭৬৮ পর্যটক সেন্টমার্টিন দ্বীপে ভ্রমণে গেছেন। জাহাজগুলো বেলা একটার মধ্যে সেন্টমার্টিন জেটিতে পৌঁছানোর কথা রয়েছে। 
সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, ঘুর্ণিঝড়ের সতর্ক সংকেত জারির পরও শতাধিক পর্যটক স্বেচ্ছায় সেন্টমার্টিন দ্বীপে অবস্থান করছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় আজ তাঁরা টেকনাফে ফিরতে পারবেন।

দাকোপের বাজুয়ায় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

কক্সবাজার টু সেন্টমার্টিন নৌপথে জাহাজ চলাচল শুরু আজ

আপডেট সময় : ০৪:২৭:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩

কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু হয়েছে। টেকনাফের দমদমিয়া জেটিঘাট থেকে আজ সকালে তিনটি জাহাজে ১ হাজার ৩০০ পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে গেছেন। ঘূর্ণিঝড় হামুনের কারণে দুই দিন বন্ধ থাকার পর এই রুটে জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু হলো। 
টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আদনান চৌধুরী জানান, আজ সকাল থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজসহ সব ধরণের নৌযান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে। ইউএনও জানান, জাহাজ চলাচল শুরু হওয়ায় সেন্টমার্টিনে স্বেচ্ছায় থেকে যাওয়া শতাধিক পর্যটক আজ ফিরতে পারবেন। 
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ টেকনাফের ট্রাফিক সুপারভাইজার মো. জহির উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, টেকনাফের দমদমিয়া জেটিঘাট থেকে আজ সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ‘কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন’ জাহাজে ১৭৫ জন, ‘কেয়ারি সিন্দাবাদে’ ৩৬৭ ও ‘এমভি বার আউলিয়া’ জাহাজে করে ৭৬৮ পর্যটক সেন্টমার্টিন দ্বীপে ভ্রমণে গেছেন। জাহাজগুলো বেলা একটার মধ্যে সেন্টমার্টিন জেটিতে পৌঁছানোর কথা রয়েছে। 
সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, ঘুর্ণিঝড়ের সতর্ক সংকেত জারির পরও শতাধিক পর্যটক স্বেচ্ছায় সেন্টমার্টিন দ্বীপে অবস্থান করছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় আজ তাঁরা টেকনাফে ফিরতে পারবেন।